No icon

নিজস্ব সংবাদ দাতা

কোহলি-পান্ডিয়াতে তিনশ পেরুল ভারত

ফিফটি পেলেন না পান্ডিয়া

মাত্র ২৭ বলে ৪৮ রানের ইনিংস খেলে কামিন্সের বলে ফিরে গেলেন পান্ডিয়া। ৩টি ছয় ও ৪টি চার ঠছিলো তার ইনিংসে। কোহলি অপরাজিত আছেন ৭১ রানে ও ধোনি খেলছেন ০ রানে।

স্কোর-৪৬ ওভারে ৩০১/৩।

কোহলি ও পান্ডিয়ার ঝড়ো পার্টনারশিপে তিনশ রান পেরিয়ে গেছে ভারত। কোহলি ৭১ রানে ও পান্ডিয়া ৪৮ রানে অপরাজিত আছেন।

স্কোর-৪৫.৪ ওভারে ৩০১/২

কোহলি-পান্ডিয়া জুটির পঞ্চাশ

কোহলি ও পান্ডিয়া ঝড়ো গতিতে এগিয়ে নিচ্ছেন রানের চাকা। ধাওয়ানের ফেরার পর মাত্র ৭ ওভারে ৬১ রানের জুটি গড়েন এই দুই ব্যাটসম্যান। কোহলি ৫৯ রানে ও পান্ডিয়া ৪১ রানে অপরাজিত আছেন।

দলীয় সংগ্রহ ৪৪ ওভারে ২ উইকেটে ২৮১ রান।

জীবন পেয়ে কোহলির ফিফটি

ব্যক্তিগত ৪১ রানে নাইলের বলে উইকেটরক্ষক ক্যারির হাতে জীবন পাওয়া কোহলি আর ভুল করলেন না। বিশ্বসেরা এই ব্যাটসম্যান তুলে নিয়েছেন তার ৫০তম ফিফটি। কোহলি ৫৭ রানে ও পান্ডিয়া ২০ রানে অপরাজিত আছেন।

৪২ ওভার শেষে ভারতের সংগ্রহ ২ উইকেটে ২৫৭ রান।

সেঞ্চুরির পর ধাওয়ানের বিদায়

দুর্দান্ত সেঞ্চুরি তুলে নেয়ার পর রান বাড়ানোয় মনযোগী ছিলেন ধাওয়ান। স্টার্কের বলে একটি বাউন্ডারি মারার পর আবারও তাকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে অতিরিক্ত খেলোয়াড় নাথান লায়নের তালুবন্দী হন তিনি। আউট হওয়ার আগে ১০৯ বলে ১১৭ রান করেন তিনি। অধিনায়ক কোহলির সঙ্গে ৯৩ রানে জুটি করে দলকে অনেকটা এগিয়ে দেন তিনি। কোহলি ৪০ ও পান্ডিয়া ০ রানে অপরাজিত আছেন।

৩৭ ওভার শেষে স্কোর ২ উইকেটে ২২০ রান।

ধাওয়ানের শতকে শক্ত অবস্থানে ভারত

এবারের বিশ্বকাপের ৬ষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে শতরানের দেখা পেলেন ধাওয়ান। ক্যারিয়ারে এটি তার ১৭তম সেঞ্চুরি। এই বিশ্বকাপে রোহিতের পর দ্বিতীয় ভারতীয় হিসেবে তিন অঙ্কে প্রবেশ করলেন তিনি। এছাড়াও আইসিসি ইভেন্টে এ নিয়ে ৬ষ্ঠ শতক হাঁকালেন তিনি। ৯৫ বলে ১৩টি চারে এই ইনিংস সাজিয়েছেন এই বাহাতি ওপেনার। ধাওয়ান ব্যাট করছেন ১০৯ রানে।  আরেক অপরাজিত ব্যাটসম্যান কোহলি আছেন ৩০ রানে। ধাওয়ান-কোহলি জুটিতে এখন অবধি যোগ হয়েছে ৬৩ রান।

৩৪ ওভারে ভারতের সংগ্রহ ১ উইকেটে ২০১ রান।

ধাওয়ানের ব্যাটে এগুচ্ছে ভারত

রোহিতের বিদায়ের পর দলকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন ধাওয়ান। তিনি ৮২ রানে ব্যাটিং করছেন। আরেক অপরাজিত ব্যাটসম্যান কোহলি খেলছেন ১০ রানে।

দলীয় সংগ্রহ-২৭ ওভারে ১ উইকেটে ১৫৩ রান।

ভয়ঙ্কর রোহিতকে ফেরালেন নাইল

ভয়ঙ্কর রোহিতকে ফিরিয়ে দিলেন নাইল। অফ স্ট্যাম্পের বাইরের একটি বল খোঁচা দিতে গিয়ে উইকেটরক্ষক ক্যারির তালুবন্দী হন রোহিত (৫৭)। ধাওয়ানের (৬৭*) সঙ্গে জুটি বাঁধতে ক্রিজে এসেছেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি (০*)।

স্কোর- ২৩ ওভারে ১২৭/১।

জোড়া হাফ সেঞ্চুরিতে এগুচ্ছে ভারত

শেখর ধাওয়ানের পর ব্যক্তিগত ৪২তম হাফ সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন রোহিত। তিনি এখন ৫৭ রানে ব্যাট করছেন। আরেক উদ্ভোধনী ব্যাটসম্যান ধাওয়ান ব্যাট করছেন ৬৭ রানে । এর আগে ১৯তম ওভারে দরীয় শতরান পেরিয়ে যায় ভারত।

দলীয় সংগ্রহ ২২ ওভারে বিনা উইকেটে ১২৭ রান।

ফিফটি করলেন ধাওয়ান

৭টি বাউন্ডারির সাহায্যে নিজের ফিফটি পূর্ন করলেন ধাওয়ান। ক্যারিয়ারে এটি তার ২৮তম অর্ধশত রানের ইনিংস। ধাওয়ান অপরাজিত আছেন ৫১ রানে। রোহিত খেলছেন ৪২ রানে।

স্কোর-১৮ ওভারে ৯৬/০।

ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছে রোহিত-ধাওয়ান জুটি

ক্রমেই ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছে রোহিত-ধাওয়ান জুটি। ম্যাচের শুরু থেকে ধৈর্যের পরীক্ষায় সফল হয়ে এাখন আক্রমণাত্বক হয়ে উঠেছেন এই দুই ওপেনার। শেষ ৫ ওভারে তারা রান সংগ্রহ করেছে ৩৭। রোহিত ৩২ ও ধাওয়ান ৪৬ রানে অপরাজিত আছেন।

১৬ ওভারে কোন উইকেট না হারিয়ে ভারতের সংগ্রহ ৮১ রান।

রোহিতের দুই হাজার রান

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ব্যাটিংয়ের সময় ব্যক্তিগত ২০ রানে খেলার মধ্যেই একটি মাইলফলকে পৌঁছে যান রোহিত। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দুই হাজার রান পূর্ণ হয় তার। উল্লেখ্য, যেকোন প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে দ্রুতগতির দুই হাজার রানের রেকর্ড এখন তার দখলে। তিনি মাত্র ৩৭ ইনিংস ব্যাট করে এই রান করেন। তিনি এখন ৩০ রানে ব্যাট করছেন। আরেক ওপেনার ধাওয়ান অপরাজিত আছেন ৩৬ রানে।

দলীয় সংগ্রহ ১৪ ওভারে ৬৯/০ 

রোহিত-ধাওয়ান জুটির পঞ্চাশ

রোহিত শর্মা ও শেখর ধাওয়ানের জুটি পঞ্চাশ পেরিয়েছে। ১২তম ওভারে দলীয় পঞ্চাশ পূর্ণ হয় ভারতের। রোহিত ১৯ রানে ও ধাওয়ান ৩৩ রান অপরাজিত আছেন। রোহিত ১টি ও ধাওয়ান ৫টি বাউন্ডারি মেরেছেন।

দলীয় সংগ্রহ ১২ ওভারে বিনা উইকেটে ৫৫ রান।

ভারতের সতর্ক শুরু

টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্তের পর সতর্কতার সঙ্গে শুরু করেছেন ভারতের দুই ওপেনার রোহিত শর্মা ও শেখর ধাওয়ান। রোহিত ৭ রানে ও ধাওয়ান ১০ রানে অপরাজিত আছেন। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে স্টার্কের বলে মাত্র ২ রানে কোল্টার নাইলের হাতে জীবন পান রোহিত।

দলীয় সংগ্রহ ৫ ওভারে বিনা উইকেটে ১৮ রান।

টস জিতে ব্যাটিংয়ে ভারত

বিশ্বকাপের ১৪তম ম্যাচে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি। টসে জিতলে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিতেন অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চও। জয়ের ধারা বজায় রাখতে কোন দলই মূল একাদশে কোন পরিবর্বতন করেনি। আগের একাশ নিয়েই মাঠে নামছে দুই দল।

ব্যাটিংয়ের জন্য ভালো পিচ হওয়ায় ব্যাটিংয়ে বড় সংগ্রহ দাঁড় করানোর উদ্দেশ্যেই ব্যাটিং নিয়েছেন বলে জানান কোহলি। অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক ফিঞ্চের বক্তব্যও ছিলো একই রকম।

Comment As:

Comment (0)